তোমায় নিয়ে ভাবনাগুলো বারবার দোল খায়
ভেসে ওঠে মুখখানি তাই স্মৃতির পাতায়।
দোদুল্যমান সোনালি কেশ, নেশার আভা ফুটেছিল মুখে
এক পলকেই দৃষ্টির তীর গেঁথেছিল এই বুকে!
হৃদয়ে আজো রক্তক্ষরণ, নয়নের জল হয়ে ঝরছে ঝরঝর
যেন বেলা অবেলায় ধরায় এসেছে আষাঢ়!
কখনও কলমে কালি হয়ে দাগ কাটে
তোমার প্রতিরূপ অংকিত হৃদপটে।
নিজেকে নিজে বারংবার করে ব্যবচ্ছেদ
তোমায় কি পেরেছি করিতে বিচ্ছেদ?
আরো তেজে আমার মাঝে গড়েছ আসন!
প্রতিটি কোষ আর নিউক্লিয়াসে তোমার বিচরণ!

অবুঝ মন কি যেন বলে সদা অবোধ ভাষায়!
ক্লান্তিহীন প্রতীক্ষা আমার কিসের নেশায়?
জানি এ জনমে তুমি শুধু স্বপ্নিল মরীচিকা!
পরজনমে প্রিয়া হয়ে দিবে কি দেখা?

আজ ছোট্ট অভিলাষ,
তোমার আঁখিতে হোক আমার নিবাস!
ঊর্ধপানে দুহাত তুলে এই প্রার্থনায় কাঁদি!
শেষ নিঃশ্বাস হোক তোমার বাহুতে, আর হৃদয়ে সমাধি!!